ব্যবহারের নিয়ম

১) ব্যবহারের নিয়ম

  1. সরাসরি Gmail অথবা Facebook দিয়ে লগিন করুন।
  2. আপনার পরীক্ষা নির্বাচন করুন।
  3. "রুটিন" বাটনে চেপে রুটিন দেখুন।
  4. "সিলেবাস" বাটনে চেপে সিলেবাস দেখুন।
  5. রুটিন অনুযায়ী নির্দিষ্ট দিনে "Enter Exam" বাটন দিয়ে পরীক্ষা দিন।
  6. পরীক্ষার তারিখের পরের দিন “ফলাফল” বাটনে চেপে ফলাফল দেখুন।
  7. রুটিন অনুযায়ী কোন পরীক্ষা দিতে না পারলে পরবর্তীতে “আর্কাইভ” থেকে প্রশ্ন দেখুন বা পরীক্ষা দিন। তবে, প্রতিযোগিতায় না থেকে আপনি নিজের যথাযথ অবস্থান জানতে পারবেন না। তাই, লাইভ পরীক্ষার কোন বিকল্প নেই।

২) পেমেন্টের নিয়ম

LIVE MCQ এর সবগুলো পদ্ধতিতেই **ব্যাঙ্কের অফিসিয়াল পেজ** ব্যবহৃত হয়। 
তাই, আপনি নিশ্চিতে আপনার একাউন্ট নাম্বার এবং পিন ব্যবহার করে পেমেন্ট করুন। 

Step-1: মেনু থেকে "পেমেন্ট করুন" অপশন ক্লিক করুন। 
Step-2: টাকার পরিমান উল্লেখ করুন। 
Step-3: "পেমেন্ট করুন" বাটন ক্লিক করুন। 
Step-4: পেমেন্ট মেথড লিস্ট থেকে আপনার Payment Method সিলেক্ট করুন। (যেমন, বিকাশ, রকেট, মাস্টার কার্ড বা অন্যান্য) 
Step-5: আপনার Account Number এবং PIN দিয়ে সাবমিট দিন।
(বিকাশ এবং রকেটের জন্য Mobile Number ই Account Number) 

বিঃদ্রঃ বিকাশে পেমেন্টের সময় Mobile Number দেয়ার পর আপনার নাম্বারে একটি মেসেজ আসবে, সেখানে যে কোডটি থাকবে সেটা সাবমিট করে তারপর আপনার PIN দিয়ে সাবমিট করুন। 

----------------

সার্বিক পদ্ধতিঃ প্রথমেই বলে নিচ্ছি, ব্যাপারটা অনেকটা মোবাইলে রিচার্জ এবং ব্যবহারের মতো।   
অর্থাৎ আপনি একবার পেমেন্ট করে বারবার পরীক্ষা দিতে পারবেন।  

দ্বিতীয়ত, কারও সিরিয়াস অর্থনৈতিক সমস্যা থাকলে আমাদের পেজে সরাসরি মেসেজ দিয়ে জানান। আমরা কিছু তথ্য নিয়ে, ফ্রি পরীক্ষা দেয়ার ব্যবস্থা করে দিব এবং আপনার পরিচয় গোপন রাখা হবে। 

১) আপনি "পেমেন্ট করুন" বাটনটি থেকে পেমেন্ট করুন।  

২) যতো টাকার পেমেন্ট করবেন ততো টাকা আপনার "প্রোফাইলে" ব্যালান্স হিসেবে যোগ হবে। 

৩) এবার আপনি পরীক্ষা দিতে থাকবেন এবং আপনার প্রোফাইলের ব্যালান্স থেকে টাকা কাটতে থাকবে। মনে রাখবেন, একটা নির্দিষ্ট পরীক্ষার প্রশ্নের জন্য একবারই টাকা কাটা হবে। পরবর্তীতে আর্কাইভ থেকে দেখার সময় কোন টাকা কাটা হবে না। 
আবার মাঝে মাঝে ফ্রি পরীক্ষা থাকবে, সেক্ষেত্রে আপনার ব্যালান্স থেকে কোন টাকা কাটা হবে না। 

এইতো! হয়ে গেল! 

আশা করি এখন আর পেমেন্ট করতে কোন সমস্যা হবে না। 

৩) কাট মার্ক কি?

প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় কোন নির্দিষ্ট নাম্বারের ভিত্তিতে পাশ করানো হয় না, আপনার অবস্থান কি তার উপর নির্ভর করে আপনি পাশ না ফেল।

যেমন, আগের পরিসংখ্যান বলে বিসিএস প্রিলিতে মোট পরীক্ষার্থীর ৩.৫% - ৫% এর মতো পাশ করানো হয়। অর্থাৎ, পাশ করতে হলে আপনাকে প্রথম ৫% এর মধ্যে থাকা উচিত।

আমরাও তাই একই নিয়মে নির্দিষ্ট পার্সেন্ট পরীক্ষার্থীকে পাশ করিয়ে থাকি। অর্থাৎ বিসিএস এর কোন মডেল টেস্টে যদি ১০০০ জন পরীক্ষা দেয় তাহলে আপনাকে ৫০ জনের মধ্যে থাকতে হবে।

এবং ৫০তম অবস্থানে যিনি থাকবেন তার প্রাপ্ত নাম্বারই হল “কাট মার্ক”।
এই সাধারণ ব্যাপারটি অনেকেই জানেননা। তাই, মুল পরীক্ষার আগে মডেল টেস্টের বইয়ে পরীক্ষা দেন এবং একটি নির্দিষ্ট নাম্বার পেলেই ভাবেন যে প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু, এই একই প্রশ্নে সবাই পরীক্ষা দিলে কে কত পাবেন এটা জানা যাচ্ছে না তাই কত পেলে পাশ হত এটা জানাও এভাবে সম্ভব নয়।

এই সমস্যার সমাধানে LIVE MCQ এর বিকল্প নেই। এখানে আপনি ঘরে বসেই, হাজারো প্রতিযোগীর মাঝে নিজের অবস্থান জানতে পারবেন এবং পরীক্ষার আগেই নিজের দুর্বলতাগুলো জেনে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারবেন। 

বিঃদ্রঃ BJS এবং NTRCA সহ কিছু পরীক্ষায় একটি নির্দিষ্ট নাম্বারকে পাশ মার্ক ধরা হয়। সেক্ষেত্রে, ঐ নাম্বারটিকেই পাশ মার্ক হিসেবে ধরা হবে।

 
কোন সাহায্য লাগলে যেকোনো সময়, 

- আমাদের ফেসবুক পেজে (LIVE MCQ) সরাসরি মেসেজ দিন। 
- আমাদের ইমেইল করুনঃ contact@livemcq.com 
- আমাদের কল করুনঃ ০১৭০১৩৭৭৩২২ 

ধন্যবাদ। :-)

ব্যবহারের নিয়ম আমাদের সম্পর্কে আমাদের পরামর্শকগণ নীতিসমূহ যোগাযোগ

Live MCQ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক রেজিস্ট্রিকৃত এবং কপিরাইট আইন দ্বারা সুরক্ষিত। কপিরাইট সার্টিফিকেট

© CrackTech